ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো: পর্তুগীজ সুপারস্টার ফুটবল খেলোয়াড়

Cristiano Ronaldo Biography and Details in Bangla

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো একজন পর্তুগীজ পেশাদার ফুটবল খেলোয়াড়। Ronaldo তার অনুসারীদের কাছে CR7 নামেও পরিচিত।

ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর জীবনী এবং বিস্তারিত

Cristiano Ronaldo Biography and Details  
আসল নাম – Real Name ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো দোস সান্তোস আভেইরো
ডাকনাম – Nickname রোনালদো, CR7
পেশা – Profession পর্তুগিজ পেশাদার ফুটবল খেলোয়াড়
বয়স – Age ৩৯ বছর (২০২৪)
জন্ম তারিখ – Date of Birth ৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৫
জন্মস্থান – Birthplace ফুঞ্চাল, মাদেইরা, পর্তুগাল
জাতীয়তা – Nationality পর্তুগীজ

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো বর্তমান ফুটবল জগতের সবথেকে উজ্জ্বল তারকাদের মধ্যে অন্যতম একটি নাম। ২০১৫ সালে পর্তুগালের ইতিহাসে সেরা ফুটবলার হিসেবে তার নাম ঘোষণা করেছে দেশটির ফুটবল ফেডারেশন। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে এক মৌসুমের সর্বোচ্চ গোল ও লা লিগায় সর্বোচ্চ গোল করার রেকর্ডের অধিকারীও তিনি।

Game Status খেলার স্থিতি
পেশাগত অভিষেক – Professional Debut ২০০২
জার্সি নম্বর – Jersey Number
খেলায় অবস্থান – Position in Game আক্রমণভাগের খেলোয়াড়
বর্তমান দল – Current Team আল নাসের, পর্তুগাল
সাবেক দল – Previous Team ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, জুভেন্টাস, রিয়াল মাদ্রিদ, স্পোর্টিং সিপি

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ১৯৮৫ সালের ৫ই ফেব্রুয়ারি পর্তুগালের মাদরা দ্বীপপুঞ্জে এক অতি দরিদ্র পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পুরো নাম হল ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো দোস সান্তোস আভেইরো। তার এই নামটি তার বাবা আমেরিকার চল্লিশ তম রাষ্ট্রপতি রোনাল্ড রিগানের নাম অনুসারে রাখেন। তার বাবা স্থানীয় পৌরসভার একজন সামান্য মালি এবং মা মারিয়া ছিলেন একজন রাঁধুনি। তার পরিবার এতটাই দরিদ্র ছিল যে, একবার এক সাক্ষাৎকার এ তার মা বলেছিলেন, যখন Ronaldo তাঁর গর্ভে ছিলেন, তখন তিনি গর্ভপাত করাতে চেয়েছিলেন, কারণ নতুন জন্ম নেওয়া শিশুর ভরণপোষণের মতো সামর্থ্য ছিল না।

Physical Status শারীরিক অবস্থা
উচ্চতা – Height ৬ ফিট ২ ইঞ্চি
ওজন – Weight ৮৩ কেজি
চোখের রঙ – Eye Color বাদামী
চুলের রঙ – Hair Color কালো

ছোটবেলা থেকেই রোনালদো ফুটবল খেলতে খুবই ভালবাসতেন। মাত্র তিন বছর বয়স থেকেই রোনালদো ফুটবল খেলা শুরু করে দেন। রোনাল্ডোর মা তাকে ছোটবেলায় ক্রাই বেবি বলে ডাকতেন। কারণ রোনাল্ডো যখনই খেলার মাঠে ভালো খেলতে পারত না বা গোল দিতে পারতেন না, তখনই সে কান্না করে দিত।

Affairs, Girlfriends, and Marital Status অ্যাফেয়ার্স, গার্লফ্রেন্ড এবং বৈবাহিক অবস্থা
বৈবাহিক অবস্থা – Marital Status অবিবাহিত
গার্লফ্রেন্ড – Girlfriend জর্জিনা রদ্রিগেজ
পুত্র – Son ক্রিশ্চিয়ানো জুনিয়র, ম্যাটেও,
কন্যা – Daughter ইভা, আলানা
Cristiano Ronaldo with his all children
Cristiano Ronaldo with his all children

দশ বছর বয়সে রোনালদো সুযোগ পায় তাদের শহরের সবচেয়ে বড় ফুটবল ক্লাব ন্যাশনালে খেলার। সেই ক্লাবের হয়ে তিনি মাত্র দুই বছর খেলেন। এরপর উনিশশো সাতানব্বই সালে তিনি পর্তুগালের একটি বড় ফুটবল ক্লাব স্পোর্টিং লিসবন এর হয়ে খেলেন প্রায় ছয় বছর। যখন রোনাল্ডোর বয়স মাত্র পনেরো বছর, তখন তার হৃদরোগ ধরা পড়ে। যেই কারণে সেখানকার ডাক্তাররা স্পষ্ট তার বাবা মাকে বলে দেন, এই অবস্থায় ফুটবল খেলা তার পক্ষে মোটেই উচিত নয়। এরপর রোনাল্ডোকে লিসবনের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় অস্ত্র পাচারের জন্য। সৌভাগ্যবশত তার হৃৎপিণ্ডের অস্ত্রপাচার সফলও হয়।

Parents and Family পিতামাতা এবং পরিবার
পিতা – Father হোসে দিনিস আভেইরো
মা – Mother মারিয়া ডোলোরেস ডস সান্তোস ভিভেইরোস দা আভেইরো
ভাই – Brother হুগো ডস সান্তোস আভেইরো
বোন – Sister কাতিয়া আভেইরো, এলমা আভেইরো
Cristiano Ronaldo with his Mother
Cristiano Ronaldo with his Mother

বাবা দিনিস আভেইরো  মাত্র বায়ান্ন বছর বয়সেই মৃত্যু হয়। রোনালদো এই ধাক্কা একদমই সহ্য করতে পারেননি। বাবার মৃত্যুর খবর তাকে একদম মর্মাহত করে তোলে। যেহেতু তাঁর বাবার মৃত্যু অতিরিক্ত মদ খাওয়ার নেশার জন্য হয়েছিল, তাই রোনাল্ডো নিজে আজ পর্যন্ত মদ স্পর্শও করেন না।

Money and Wealth অর্থ ও সম্পদ
নেট ওয়ার্থ – Net Worth  ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার (আনুমানিক)

বাবার মৃত্যুর পর তাদের পরিবারের আর্থিক অবস্থা ধীরে ধীরে আরও খারাপ হতে শুরু করে। তার মা মারিয়া লোকের বাড়ি রান্না করে নিজের পরিবারের পেট চালাতে থাকেন। কিন্তু এত সবকিছু হওয়ার পরও Cristiano Ronaldo তাঁর নিজের ফুটবল অনুশীলন মোটেই বন্ধ করে দেননি, বরং আরও ভাল করে মনোযোগ সহকারে নিজের ফুটবল অনুশীলনে মন দেন, এবং পর্তুগালের একজন সেরা জুনিয়র ফুটবল খেলোয়াড় হয়ে ওঠেন।

Cristiano Ronaldo on Manchester United Jersey
Cristiano Ronaldo on Manchester United Jersey

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড দলের হয়ে অবদান

স্পোর্টিং লিসবনের হয়ে তিনি তার প্রথম ম্যাচ খেলেন মাত্র সতেরো বছর বয়সে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বিপক্ষে। যেখানে তার অভাবনীয় ফুটবল স্কিল দেখে দর্শক সহ সমস্ত খেলোয়াড় এমনকি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের তখনকার কোচ স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন মুগ্ধ হয়ে যান। আর দেরি না করে স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন রোনালদোকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এর হয়ে খেলানোর সিদ্ধান্ত নেন।

Education শিক্ষা
শিক্ষাগত যোগ্যতা – Educational Qualification হাই স্কুল
বিদ্যালয় – School Escola Básica e Secundária Goncalves Zarco

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ফুটবল ক্লাব এই প্রতিভাবান খেলোয়াড়কে পাওয়ার জন্য ১২.২৪ মিলিয়ন পাউন্ড খরচ করে। যেটা কিনা ব্রিটিশ ফুটবল ইতিহাসে একজন যুব ফুটবল খেলোয়াড়ের উপর করা সবচেয়ে বেশি অর্থ ছিল তখনকার সময়ে।

Social Media Links
ইনস্টাগ্রাম – Instagram Instagram.com
ফেসবুক – Facebook Facebook.com

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এর হয়ে Ronaldo প্রায় ছয় বছর খেলেন ২০০৩ সালের আগস্ট থেকে ২০০৯ সালের মে পর্যন্ত, যেখানে তিনি একশো ছিয়ানব্বই টি ম্যাচ খেলে চুরাশি টি গোল করেন। এই ক্লাবে মূলত তিনি সি আর Seven নামে পরিচিতি পান। তাঁর স্কিল ও অসাধারণ ফ্রি কি কী জানান দেয়, এর পরের বিশ্ব ফুটবলে তিনি রাজত্ব করতে আসছেন।

Cristiano Ronaldo on Real Madrid Jersey
Cristiano Ronaldo on Real Madrid Jersey

রিয়েল মাদ্রিদ দলের হয়ে অবদান

এরপর ২০০৯ সালে স্প্যানিশ ফুটবল জায়ান্ট রিয়েল মাদ্রিদ ক্লাব তাকে ৯৪ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে তাদের দলে ফেরায়। রোনাল্ডো অতি কম সময়ের মধ্যে রিয়াল মাদ্রিদ দলের একজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হয়ে ওঠেন। রাউলের ২০১০ সালে ক্লাব ছাড়ার পর তাঁকে ক্লাবের সাত নম্বর জার্সি প্রদান করা হয়। রিয়েল মাদ্রিদের হয়ে তিনি খেলেন প্রায় নয় বছর অর্থাৎ ২০০৯ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত। যেখানে তার গোলের সংখ্যা ছিল প্রায় তিনশো এগারোটি।

রোনাল্ডো হচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ ফুটবল ক্লাবের all time greatest খেলোয়াড়দের মধ্যে একদম শীর্ষে আর তার গোল সংখ্যাকে পরাস্ত করা কোন রিয়াল মাদ্রিদ ফুটবলারদের কাছে এখনও প্রায় অসম্ভব বলেই আমার কাছে মনে হয়।

বাস্তবে রোনাল্ডোর সাথে রিয়াল মাদ্রিদের চুক্তি ছিল দু হাজার পনেরো সাল পর্যন্ত। কিন্তু পরে সেই চুক্তিকে বাড়িয়ে দু হাজার একুশ সাল পর্যন্ত করা হয় ১৮৬৪ কোটি টাকার বিনিময়ে। কিন্তু দু হাজার সতেরো থেকে দু হাজার আঠারো সালে রিয়েল মাদ্রিদের সাথে রোনাল্ডোর পারস্পরিক বোঝাপড়ার সমস্যা হতে থাকে।

Cristiano Ronaldo on Juventus Jersey
Cristiano Ronaldo on Juventus Jersey

জুভেন্টাস দলের হয়ে অবদান

২০১৮ বিশ্বকাপের পর রোনাল্ডো অবশেষে ইতালির ক্লাব জুভেন্টাসের সাথে চুক্তিবদ্ধ হন। ইতালির এই ক্লাবটি রোনাল্ডোকে কিনতে প্রায় ৩৪০ মিলিয়ন ডলার খরচ করে ফেলে। কিন্তু তিনি দুই হাজার একুশে জুভেন্টাস ছেড়ে দেন। এই ক্লাবের হয়ে তিনি আটানব্বই ম্যাচে একাশি টি গোল করেন। এরপর তিনি আবারও যোগ দেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের শিবিরে। কিন্তু সেখানেও বেশিদিন স্থায়ী হননি। ক্লাবের সাথে ঝামেলার কারণে তিনি আজীবনের জন্য ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড থেকে নিষিদ্ধ হন। এই ক্লাবের হয়ে তিনি দু হাজার একুশ থেকে দু হাজার বাইশ সেশনে চল্লিশ ম্যাচে ঊনিশ টি গোল করেন।

Cristiano Ronaldo on Al-Nassr FC Jersey
Cristiano Ronaldo on Al-Nassr FC Jersey

আল নাসের অধ্যায়

বর্তমানে তিনি সৌদি আরবের ক্লাব আল নাসেরের সাথে দুই বছরের জন্য দুইশো মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে চুক্তিবদ্ধ হন।

পর্তুগাল জাতীয় দলের হয়ে অবদান

রোনাল্ডোর পর্তুগাল জাতীয় দলের হয়ে দু হাজার তিন সালের আগস্ট মাসে কাজাকিস্তানের বিরুদ্ধে তার অভিষেক ঘটে। তিনি জাতীয় দলের হয়ে একশোরও অধিক ম্যাচ খেলেছেন, এবং তিনি বর্তমানে পর্তুগালের সর্বোচ্চ গোলের অধিকারী। ২০০৪ সালের উয়েফা ইউরোর প্রথম খেলায় গ্রীসের বিরুদ্ধে তিনি তার প্রথম আন্তর্জাতিক গোল করেন। ২০০৮ সালের জুলাই মাসে পর্তুগালের অধিনায়ক হন এবং দু হাজার বারো সালের উয়েফা ইউরোতে অধিনায়ক হিসেবে দলকে সেমিফাইনালে নিয়ে যান এবং প্রতিযোগিতায় সর্বোচ্চ গোল করেন।

Cristiano Ronaldo on Portugal Jersey
Cristiano Ronaldo on Portugal Jersey

প্রতি বিশ্বকাপে তিনি অতি অসাধারণ না হলেও পর্তুগালকে মূল পর্বে তুলতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। ইউরোপ ২০১৬ তে তিনি প্রায় একক প্রচেষ্টায় দলকে ফাইনালে তুলে প্রথমবারের মতো কোনও আন্তর্জাতিক ইউরোপায় জয়ের স্বাদ গ্রহণ করেন।

ফাইনালে নেবার পথে তিনি Do or die ম্যাচে হাঙ্গেরির বিপক্ষে জোড়া গোল এবং অ্যাসিস্ট করেন। জাতীয় দলের হয়ে তিনি একশো ছিয়ানব্বই ম্যাচে একশো আঠারোটি গোল করেছেন।

রোনালদোর ক্যারিয়ারের অর্জন

  • পাঁচ বার FIFA Ballon d’Or বিজয়ী। ২০০৮, ২০১৩, ২০১৪, ২০১৬, এবং ২০১৭ সালে।
  • একবার FIFA World player of the year ২০০৮ সালে।
  • দুইবার Best FIFA Men’s player ২০১৬ এবং ২০১৭ সালে।
  • একবার FIFA Club World Cup গোল্ডেন বল বিজয়ী ২০১৬ সালে।
  • চারবার ইউরোপিয়ান গোল্ডেন সু বিজয়ী। ২০০৮, ২০১১, ২০১৪ এবং ২০১৫।
  • সাতবার উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ টপ স্কোরা দুইবার player of the year।
  • একবার প্রিমিয়ার লীগ গোল্ডেন বুট বিজয়ী।
  • একবার ফিফা পুস্কাস অ্যাওয়ার্ড বিজয়ী।

রোনালদোর ব্যক্তিগত জীবনে দানশীলতা

ব্যক্তিগত জীবনে দানশীলতা এবং বিশ্বব্যাপী অসহায় মুসলমানদের সাহায্য করার জন্য বহুল প্রশংসিত তিনি। তিনি দু হাজার এগারো সালে জয় করা সোনার বুট ফিলিস্তিনের দরিদ্র শিশুদের মধ্যে নিলামে বিক্রি করে দিয়েছিলেন। তিনি সিরিয়াতে শরণার্থীদের পাঁচ হাজার ঘর বানিয়ে দিয়েছিলেন।

নেপালে ভূমিকম্পে তিনি নেপালকে অর্থ প্রদান করতে চাইলে নেপালি সরকার তা সরাসরি নিতে অনিচ্ছা পোষণ করলে তিনি Save the Children নামক সংস্থার মাধ্যমে নেপালি শিশুদের স্বাস্থ্য সহায়তায় অনুদান প্রদান করেন।

বিশ্বের অসংখ্য ক্যান্সার নিরাময় কেন্দ্র তথা হাসপাতালে রোগীদের চিকিৎসা ব্যয় বহন করেন তিনি। দুটি বিশ্বকাপ বাছাই খেলার পর ইন্দোনেশিয়ায় যান তিনি। সেখানকার সুনামি দুর্গত এলাকা পরিদর্শন করেন এবং অর্থ সাহায্য তুলতে অংশ নেন। এছাড়াও তিনি নিজের শরীরে কখনও ট্যাটু করাননি। কারণ ট্যাটু করালে তিনি রক্তদান করতে পারবেন না।

রোনালদোর ব্যক্তিগত জীবন

২০১০ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত তিনি রাশিয়ান সুপার মডেল ইরিনা সায়াকের সাথে ডেট করেন।

Cristiano Ronaldo with Georgina Rodríguez
Cristiano Ronaldo with Georgina Rodríguez

বর্তমানে তিনি আর্জেন্টাইন বংশোদ্ভূত স্পেনিশ মডেল জর্জিনা রদ্রিগেজের সাথে আছেন এবং তাদের ঘরে চারটি সন্তান রয়েছে।

ব্যবসায়ী রোনালদো

রোনালদো একজন সফল খেলোয়াড় এর পাশাপাশি একজন সফল ব্যবসায়ী। তার ব্র্যান্ড CR7 এর আন্ডারওয়ার এবং পারফিউম বিশ্বব্যাপী ব্যাপক জনপ্রিয়।

Scroll to Top