খাগড়াছড়ির বাজার থেকে উধাও হয়ে গেছে পেঁয়াজ

Onion has disappeared from Khagrachari market

খাগড়াছড়ির বাজার থেকে পেঁয়াজ উধাও কোথাও মিলছে না পেঁয়াজ ক্রেতারা ফিরছেন খালি হাতে।

খাগড়াছড়ির বাজারে অস্বাভাবিক চড়া পেঁয়াজের দাম

মূল্যবৃদ্ধির সুযোগ নিতে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে বাজারে ছাড়া হচ্ছে না পেঁয়াজ অভিজগ খুচরা বিক্রেতা ও ভোক্তাদের।

কোথাও মিলছে না পেঁয়াজ। খুচরা বিক্রেতাদের দাবি দাম বেশি হবার কারনে অল্প পুজি দিয়ে তারা পেঁয়াজ কিনতে পারছেন না। তাদের দাবি আড়ৎদাররা বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করছেন এবং ভাউচার দিচ্ছেন না এ কারনে খুচরা বিক্রেতারা পেঁয়াজ কেনা থেকে বিরত থাকছেন। যার ফলে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে না পেঁয়াজ।

এদিকে ভোক্তারা অভিজগ করছেন পাইকারি আড়ৎদার পেঁয়াজ লুকিয়ে রেখে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করার চেষ্টা করছে। অনেকেই পেঁয়াজ কেনা বাদ দিয়ে দিয়েছেন। তারা বলছেন এত দাম দিয়ে পেঁয়াজ কিনে খাওয়া তাদের পক্ষে সম্ভব না।

আড়ৎদাররা বলছেন তারা যে মোকাম থেকে পেঁয়াজ আনেন সেখানে পেঁয়াজ এর সংকট। যার কারনে তারা বেশি করে পেঁয়াজ আনতে পাচ্ছেন না। এর ফলে দাম বেড়ে যাচ্ছে।

জেলা প্রশাসন এবং ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তর এর অবিরত অভিযান এর পরেও অস্থিতিশীল খাগড়াছড়ির পেঁয়াজ বাজার।

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার পেঁয়াজ রপ্তানির ওপর ৩১ মার্চ পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। গত ৮ ডিসেম্বর এ খবর পাওয়ার পর থেকেই ঘণ্টায় ঘণ্টায় বাড়তে থাকে পেঁয়াজ এর দাম। একদিনের ব্যবধানে খুচরা বাজারে দ্বিগুণ দামে বিক্রি হতে শুরু করে পেঁয়াজ, একপর্যায়ে পেঁয়াজ এর দাম গিয়ে ঠেকে কেজিতে ২৫০ টাকায়।

Scroll to Top